https://banglagolpokobita.com/wp-content/uploads/2018/05/valobasa-bissas-o-oviman-kamal-uddin-mehedi.jpg

ঘটনাটি ঘটেছিল অনেককাল আগে।আজ থেকে ৪০ বছর আগের ঘটনাকে আর কীই বা বলাযায়।তখন আমি ক্লাস ইন্টারে পড়ি।বয়স ১৭-১৮ হবে।সন্ধের পর নিমাইদের মজলিস খানায় বসে আড্ডা দিতেছি।আড্ডার মাঝে হঠাৎ বাদিক থেকে সজিব বলে উঠল”জানিস সেদিন মিনু মামা রাতে মঞ্চ নাটক দেখে আসার সময় বাগানবাড়ির পাশে যে আমবাগান সেখানে ভূত দেখেছেন।”
রিক বলল “তাই”
প্যরানরমাল বিষয়ে রিকের একটু বেশিই আগ্রহ।সাধারণত এ বিষয়ে সবার কম-বেশি আগ্রহ থাকে।আমরা সবাই মিনু মামার ভূত দেখার বিষয় নিয়ে আলোচনায় জড়িয়ে গেলাম।এসময় নগেন বলল”দেখ যথ মেয়েলী কাণ্ড”।
আমরা সবাই নগেনের কথার প্রতিবাদ করলে ও প্রমাণের অভাবে হেরেই যাচ্ছিলাম।
নিহা বলল”এটা প্রমাণ করার রাস্তা আজ রাতে সবাই মিলে বাগানবাড়ির আম বাগানে আড্ড দেওয়া।”
সবাই নিহার কথায় সায় দিল।আমারা যখন বাগানবাড়ির পথে রওনা দিলাম তখন গভীর রাত।বাগানবাড়ির এলাকা মানবহীন।আমগাছ প্রতেকটি মনে হচ্ছিল এক-একটা বিশাল দেহের দানব।যখন আমরা সময় কাটাবার জন্য আমগাছের তলায় বসবে তখন নগেন দ্রুত ছুটতে শুরু করল।আমরা কিছু না বুঝে চারিদিকে দেখতে লাগলাম।আমরা দেখি আমগাছ থেকে গলায় দড়ি দিয়ে অনেক লাশ ঝুলছে।এমন অবস্তা দেখে আমরা প্রাণপণে ছুটথে আরম্ভ করি।আবার এক হই নিমাইদের মজলিস খানায়।
নিহা নগেনকে বলে”কী ভূত আছে বিশ্বাস হয়েছেত”
নিহার কথাশোনার সাথে-সাথেই মজলিস খানায় একটা উচ্চ হাসির রোল পড়ে গেল।

SHARE

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.